,

ছাত্রলীগ ব্যক্তির লাঠিয়ানা বাহিনী নয় প্রকৃত আদর্শের ঠিকানা

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাফল্য ও গৌরবের ৭০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালনে ২৫নং রামপুর ওয়ার্ড ছাত্রলীগ আয়োজিত এক আলোচনা সভা ও কেক কাটা অনুষ্ঠান গতকাল শনিবার বিকেলে এয়াকুব আলী গার্লস কলেজ ময়দানে ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা জাবেদ রহিম মুন’র সভাপতিত্বে ও ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা সাফায়েত হোসেন তানভীর’র পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ২৫নং রামপুর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আলহাজ্ব এস.এম. এরশাদ উল্লাহ। প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সম্পাদক ও ওমর গণি এম.ই.এস. বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগ সভাপতি হাবিবুর রহমান তারেক।
উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি কাউন্সিলর আলহাজ্ব এস.এম. এরশাদ উল্লাহ বলেন, ছাত্রলীগ কোন ব্যক্তির লাঠিয়াল বাহিনী নয়, প্রকৃত জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আদর্শ চর্চা ও জননেত্রী শেখ হাসিনার অবিচল নেতৃত্বে ঠিকানা। আগামী নির্বাচনে নৌকা, প্রতীকের ভোট নিশ্চিত করতে ছাত্রলীগের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে। আমরা যখন ছাত্রলীগ করতাম তখন এই পরিবেশ পরিস্থিতি ছিলনা। এখন প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার কাজ করছে। এই কাজের সুফল গুলো প্রতিটি ঘরে ঘরে ছাত্রলীগের প্রতিটি নেতাকর্মীদের পৌঁছে দিতে হবে। উক্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ওমরগণি এম.ই.এস. বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি হাবিবুর রহমান তরেক দীর্ঘ ৭০ বছরের ইতিহাসের সাথে বাঙালি ইতিহাসের সাথে গভীর সম্পর্কের কথা অভিহিত করে বলেন, ছাত্রলীগের দুর্নামটা আগে সুনামটা আগে আসে না, স্লোগান দিলেও সমস্যা। বাঙালির ইতিহাসকে ছাত্রলীগ রক্ত দিয়ে সাজিয়ে গেছেন অথচ তিল পরিমাণ দোষ পেলে সেটাকে বড় আকারে পত্রিকায় ছাপানো হয়, যা দুঃখজনক। ছাত্রলীগ সবসময় আদর্শিক চেতনা নিয়ে কাজ করে দেশ ও জাতির প্রয়োজনে সবসময় সোচ্ছার ছিল। দেশে প্রতিটি আন্দোলন সংগ্রামে ছাত্রলীগের ভূমিকা অপরিসীম। ছাত্রলীগ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভ্যান গার্ড হয়ে মানবিক ও নির্ভীক সৈনিকের মত দুর্বার। তিনি প্রধানমন্ত্রী দেশরতœ শেখ হাসিনার উন্নয়ন বানী প্রতিটি ঘরে ঘরে পৌঁছে দিয়ে ছাত্রলীগের প্রতিটি নেতাকর্মীদের নৌকায় ভোট নিশ্চিত করতে আহ্বান জানান।
এতে আরও বক্তব্য রাখেন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য তারেক মাহমুদ পাপ্পু, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সদস্য ইয়াছিন আরাফাত কচি, বাবর উদ্দিন সাগর, নগর ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর, উপ-প্রচার সম্পাদক এম এ হালিম সিকদার মিতু, মহানগর ছাত্রলীগের সদস্য মাহমুদুর রশিদ বাবু, ২৭নং ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা তাজুল ইসলাম তাজু, নিউয়ার্ক স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক সালাহ উদ্দিন বিপ্লব, এম.ই.এস. কলেজ ছাত্রলীগ নেতা শরফুল আনাম জুয়েল, সৈয়দ আনিসুর রহমান, রাকিব হায়দার, আব্দুল্লাহ আল নোমান, ইউসুফ আলী বিপ্লব, মোঃ সেলিম, মোশাররফ রুবেল, আশরাফুল ইসলাম শান্ত, জোবায়ের উদয়, ২৫নং ওয়ার্ড যুবলীগ নেতা নিয়াজ মোহাম্মদ আজাদ, লুৎফুর লতিফ, সাহাবুদ্দীন চৌধুরী, আরিফুর রহমান মানিক, আনোয়ারুল মজিদ, ২৫নং ওয়ার্ড স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আব্দুল আহাদ জয়, ১২নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা শফিকুল ইসলাম রবিন, মাসুদ রানা, মোঃ মিসকাত, মোঃ জাবের, সাজ্জাদ হোসেন, হৃদয়, ২৪নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ নেতা তানজিম শাওন, সাইফুল ইসলাম বাধন, মিশু শীল, সাজ্জাদ হোসেন, গোলাম হোসেন আবির, ২৫নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগ সানজিদুল আলম সোহান, সাফায়েত হোসেন তানভীর, সামির রহমান, রিফাত আবরার, আবু সাঈদ, প্রিন্স চৌধুরী, মোঃ রাহাত, মোঃ রাজু, লোকমান হাকিম টিটু, মোঃ ইমন, মোঃ আসিফ, মোঃ তানভীর, মোঃ সালমান প্রমুখ। আলোচনা সভা শেষে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর কেক কাটা হয়।

Leave a Reply