,

Home » Top » তিন ম্যাচের সিরিজে এগিয়ে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা

তিন ম্যাচের সিরিজে এগিয়ে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা

জুলাই ২৯, ২০১৮ |

।। স্পোর্টস ডেস্ক ।।

Tamim Iqbal of Bangladesh hits 4 during the 3rd and final ODI match between West Indies and Bangladesh at Warner Park, Basseterre, St. Kitts, on July 28, 2018. / AFP PHOTO / Randy Brooks

ওয়েস্ট ইন্ডিজকে তিন ম্যাচ সিরিজের তৃতীয় ওয়ানডেতে ১৮ রানে হারিয়ে ২২তম ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে টাইগাররা। আর সিরিজ জয়ের পাশাপাশি সর্বোচ্চ রান, সর্বোচ্চ উইকেট, ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ইনিংস, সেরা বোলিং ইনিংস আর সর্বোচ্চ দলীয় ইনিংসে এগিয়ে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। ব্যাট হাতে দুটি সেঞ্চুরি করে দুর্দান্ত খেলেছেন তামিম ইকবাল, হয়েছেন সিরিজ সেরা খেলোয়াড়।

২০০৫ সালে জিম্বাবুয়েকে হারিয়ে প্রথমবারের মতো ওয়ানডে সিরিজ জিতেছিল বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে পাঁচ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ বাংলাদেশ ৩-২ ব্যবধানে জিতে নেয়। দেশের বাইরে বাংলাদেশ প্রথম সিরিজ জেতে ২০০৬ সালে। কেনিয়াকে তাদের মাটিতে ৩-০ ব্যবধানে হারায় টাইগাররা। এবার বিদেশের মাটিতে ৯ বছর পর দ্বিপক্ষীয় ওয়ানডে সিরিজ জিতল টাইগাররা। দেশের বাইরে এটি বাংলাদেশের পঞ্চম সিরিজ জয়। এছাড়া দেশের মাটিতে জিতেছে ১৭টি সিরিজ। ঘরের মাঠে বাংলাদেশ সবশেষ ওয়ানডে সিরিজ জেতে ২০১৬ সালের অক্টোবরে, আফগানিস্তানের বিপক্ষে। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজে সবশেষ সিরিজ জেতে ২০০৯ সালের জুলাইয়ে, তিন ম্যাচের সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছিল ক্যারিবীয়ানরা। একই বছরের আগস্টে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ৫ ম্যাচ ম্যাচ সিরিজে টাইগাররা জিতেছিল ৪-১ ব্যবধানে।

সর্বোচ্চ রান: সফরকারী দলের হয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজে তিন ম্যাচের সিরিজে সর্বোচ্চ রান তামিমের (২৮৭)। ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে স্বাগতিকদের বিপক্ষে ৩ ম্যাচ সিরিজে এতো বেশি রান করেননি আর কোনো ক্রিকেটার। ২০০৩ সালে অস্ট্রেলিয়ার ড্যারেন লেম্যান ৩ ম্যাচে করেছিলেন ২০৫ রান। মোহাম্মদ হাফিজ ২০১৭ সালে ৩ ম্যাচে করেন ২০১ রান। দেশের বাইরে দ্বিপাক্ষিক কোনো ৩ ম্যাচ সিরিজে তামিমের রানই এখন সর্বোচ্চ। বাংলাদেশের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৯০ রানের রেকর্ডটি সাকিবের দখলে। চলতি সফরেই সাকিব ৩ ম্যাচে করেছেন ১৯০ রান। সদ্য সমাপ্ত এই সিরিজে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২০৭ রান করেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের হেটমেয়ার। চতুর্থ সর্বোচ্চ ১৪২ রান করেছেন ক্রিস গেইল আর পঞ্চম সর্বোচ্চ ১১৮ রান করেছেন রভম্যান পাওয়েল।

সর্বোচ্চ উইকেট: তিন ম্যাচ সিরিজে সর্বোচ্চ উইকেটটিও বাংলাদেশের দখলে। সর্বোচ্চ ৭টি উইকেট নিয়েছেন মাশরাফি। ৫টি করে উইকেট নিয়েছেন মোস্তাফিজুর রহমান এবং রুবেল হোসেন। ৪টি করে উইকেট নিয়ে চতুর্থ এবং পঞ্চম স্থানে আছেন দেবেন্দ্র বিশু এবং জ্যাসন হোল্ডার।

ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ইনিংস: বাংলাদেশের বাঁহাতি ওপেনার তামিম প্রথম ম্যাচে করেছিলেন অপরাজিত ১৩০ রান। ১৬০ বলে ১০টি চার আর ৩টি ছক্কায় তামিম তার ইনিংসটি সাজিয়েছিলেন। এটিই এই সিরিজে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ রানের ইনিংস। ১২৫ রান করে এই তালিকায় দুইয়ে হেটমেয়ার। তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে তামিম করেছিলেন ১০৩ রান, তালিকায় তৃতীয়। সাকিব প্রথম ম্যাচে ৯৭ রান করে এই তালিকায় চতুর্থ স্থানে রয়েছেন। আর অপরাজিত ৭৪ রান করে তালিকায় পাঁচে রভম্যান পাওয়েল।

সেরা বোলিং ইনিংস: তিন ম্যাচ সিরিজে সেরা বোলিং ইনিংসটিও বাংলাদেশের দখলে। লাল-সবুজদের অধিনায়ক মাশরাফি প্রথম ম্যাচে ১০ ওভারে ১ মেডেন নিয়ে ৩৭ রানের বিনিময়ে নিয়েছিলেন চারটি উইকেট। আরেক টাইগার পেসার রুবেল হোসেন দ্বিতীয় ওয়ানডেতে ৯ ওভারে ৬১ রানের বিনিময়ে নিয়েছিলেন তিনটি উইকেট, এই তালিকায় যা দ্বিতীয় স্থানে।

সর্বোচ্চ দলীয় ইনিংস: ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সর্বোচ্চ ইনিংসের রেকর্ড গড়েছে বাংলাদেশ। ৬ উইকেট হারিয়ে তৃতীয় ম্যাচে লাল-সবুজরা করেছে ৩০১ রান।

Leave a Reply