,

Home » Top » নির্বাচন পূর্ব মাইজভান্ডার শরীফ জিয়ারতে ইসলামী ফ্রন্ট মহাসচিব মাওলানা এম এ মতিন প্রতিহিংসা ও সংঘাতের রাজনীতি বন্ধে সংলাপ প্রত্যাশিত ভূমিকা রাখতে পারে

নির্বাচন পূর্ব মাইজভান্ডার শরীফ জিয়ারতে ইসলামী ফ্রন্ট মহাসচিব মাওলানা এম এ মতিন প্রতিহিংসা ও সংঘাতের রাজনীতি বন্ধে সংলাপ প্রত্যাশিত ভূমিকা রাখতে পারে


নির্বাচনকে সামনে রেখে বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্টের কর্মসূচি যিয়ারতে কাফেলা উপলক্ষে মাইজভান্ডার দরবার শরীফ যান বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট মহাসচিব মাওলানা এম এ মতিন ও সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব স উ ম আবদুস সামাদ। যিয়ারতে কাফেলার বহর সকাল ১০টায় হাটহাজারী ইমাম আজিজুল হক শেরে বাংলা (রহ.) এর মাজার জিয়ারত করে মাইজভান্ডার দরবার শরীফের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। এসময় উত্তর চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্পটে নেতাকর্মিরা একত্রিত হয়ে কেন্দ্রীয় নেতাদের শুভেচ্ছা জানান এবং শতাধিক মোটরবাইক ও বিভিন্ন যানবাহন নিয়ে যিয়ারতে কাফেলার বহরে যোগদান করেন। মাইজভান্ডার দরবার শরীফে পৌঁছে ইসলামী ফ্রন্ট নেতৃবৃন্দ প্রথমেই এ দরবারের প্রতিষ্ঠাতা ও প্রাণপুরুষ হযরত আহমদ উল্লাহ মাইজভান্ডারী (রহ.) এর মাজার শরীফ জিয়ারত করেন এবং পরবর্তীতে অন্যান্য মাজার শরীফ জিয়ারত করেন ও দরবারের সাজ্জাদানশীনদের সাথে সাক্ষাৎ করেন। এসময় উত্তর জেলা ইসলামী ফ্রন্টের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ এনামুল হক ছিদ্দিকীর পরিচালনায় সংক্ষিপ্ত সভায় নেতাকর্মিদের উদ্দেশ্যে নির্দেশনা মূলক বক্তব্য রাখেন ইসলামী ফ্রন্ট মহাসচিব এম এ মতিন। তিনি বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচনে সূফিবাদী শান্তিকামী জনগণের প্রতিনিধিত্ব নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। ইসলামী ফ্রন্টের প্রার্থীর পক্ষে জনমত গঠনে নেতাকর্মিদের মাঠ পর্যায়ে কার্যক্রম বেগবান করার আহবান জানান তিনি। চলমান সংলাপ নিয়ে তিনি বলেন, সংলাপ জাতীয় জীবনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পারে। প্রতিহিংসা ও সংঘাতের রাজনীতি বন্ধ করার ক্ষেত্রে সংলাপ প্রত্যাশিত ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। সভায় ইসলামী ফ্রন্ট যুগ্ম মহাসচিব স উ ম আবদুস সামাদ বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নিশ্চিত করতে প্রধানমন্ত্রীর সাথে রাজনৈতিক জোট ও দলের সংলাপ কার্যকরী ভূমিকা রাখবে। সভায় উপস্থিত ছিলেন ইসলামী ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কার্যনিবাহী কমিটির সদস্য মাস্টার মুহাম্মদ আবুল হোসাইন, উত্তর জেলা ইসলামী ফ্রন্টের সহ সভাপতি মাওলানা তৌহিদুল হক, সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, অর্থ সম্পাদক এইচ এম মঞ্জুরুল আনোয়ার চৌধুরী, যুবসেনার কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মুহাম্মদ আবু আজম, ছাত্রসেনার কেন্দ্রীয় সভাপতি এইচ এম শহীদুল্লাহ, মাস্টার মুহাম্মদ ঈসমাইল, মীর মুহাম্মদ হাবিবুল্লাহ, মুহাম্মদ শাহজাহান, আমান উল্লাহ আমান, মুহাম্মদ মাছুমুর রশিদ কাদেরী, মুহাম্মদ মিজানুর রহমান, মামুনুর রশিদ জাবের, আলমগীর হোসেন মামুন, ফরিদুল আলম, মুহাম্মদ নাসির উদ্দিন রুবেল, আবদুল্লাহ আল রোমান, শাহেদুল আলম, সাজ্জাদুল হক আরফান, শফিউল আলম প্রমুখ।

Leave a Reply