,

Home » Top » মা মাছ ও ডলফিন রক্ষায় : ফটিকছড়িতে হালদা নদীর ১৪ টি বালু মহাল বিলুপ্ত ঘোষণা

মা মাছ ও ডলফিন রক্ষায় : ফটিকছড়িতে হালদা নদীর ১৪ টি বালু মহাল বিলুপ্ত ঘোষণা


দক্ষিন এশিয়ার একমাত্র প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন ক্ষেত্র হালদা নদীর পরিবেশ রক্ষায় হালদা নদীর ফটিকছড়ি অংশের ১৪ টি বালু মহালসহ ১৭টি বালু মহাল বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়েছে। বালি উত্তোলনের কারণে ড্রেজারে আঘাতে একের পর এক ডলফিন ও মা মাছ মৃত্যুর কারণে প্রশাসন এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা গেছে।
সূত্রে জানা যায়,গত ৫ এপ্রিল চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের সিনিয়র সহকারী কমিশনার এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা জারি করেন। ‘হালদা নদী সংশ্লিষ্ট বালু মহালসমূহ বিলুপ্ত ঘোষণা প্রস্তাব অনুমোদন’ শীর্ষক পত্রে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। মা মাছের মৃত্যু ছাড়াও হালদা নদীতে ২০১৭ সালের ১৭ সেপ্টেম্বর থেকে এ বছরের পহেলা ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ১৯ টি মৃত ডলফিন উদ্ধার করা হয়। এ প্রেক্ষিতে বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয় বালু মহালসমূহ বিলুপ্ত ঘোষণা করে। বালু মহাল বিলুপ্ত ঘোষণার অনুমোদনপত্রে বলা হয়, ‘হালদা নদীতে কার্প জাতীয় মাছের প্রাকৃতিক প্রজনন নিশ্চিত করার স্বার্থে সংকটাপন্ন বাসস্থান হিসাবে চিহ্নিত হওয়া এবং চট্টগ্রাম জেলা মৎস্য কর্মকর্তা এবং পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রামের পরিচালকের হালদা নদীর পরিবেশ ও প্রতিবেশ ব্যবস্থা রক্ষার সুপারিশের প্রেক্ষাপটে হালদা নদীতে স্থিত ১৭টি বালু মহাল বিলুপ্তির প্রস্তাব এবং বালু মহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ৯ (৪) ধারায় বিভাগীয় কমিশনার চট্টগ্রাম মহোদয় শর্ত সাপেক্ষে অনুমোদন দিয়েছেন।’
শর্তের মধ্যে আছে, ‘ভুমি মন্ত্রণালয়, মহামান্য হাইকোর্ট/সুপ্রীম কোর্ট, বিজ্ঞ দেওয়ানী আদালত অথবা অন্য কোনো যোগ্য আদালত প্রদত্ত নির্দেশনার পরিপন্থী কোন কার্যক্রম গ্রহণ করা যাবে না এবং বালু মহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এ বর্ধিত ৯ (৫) ও ৯ (৬) ধারা মোতাবেক পরবর্তী কার্যক্রম গ্রহণ করতে হবে। সূত্রে জানা যায়, চট্টগ্রামের তিন উপজেলা ফটিকছড়ি, রাউজান ও হাটহাজারীর মধ্যদিয়ে হালদা নদী প্রবাহিত হয়েছে। বিলুপ্ত ঘোষিত ১৭টি বালু মহালের মধ্যে ১৪টি ফটিকছড়ি ও ৩টি রাউজানে পড়েছে।
বিলুপ্ত ঘোষিত ফটিকছড়ি অংশের বালু মহালগুলো হল যোগিনীঘাট বালু মহাল, পাঁচপুকুরিয়া ব্রাক্ষ্মণচর হালদা নদী বালু মহাল, একখুলিয়া বালু মহাল, হালদা নদী আজিম চৌধুরীঘাট বালু মহাল, হালদা নদী দক্ষিণ ধুরুং বালু মহাল, নতুন ব্রিজ হালদা নদী বালু মহাল, ছিলোনিয়া খালের মুখ হতে ধুরুং খালের মুখ পর্যন্ত বালু মহাল, ধুরুং খালের উপরে ও নিচে বালু মহাল, হালদা নদী বালু মহাল ১ নং থেকে ৫ নং পর্যন্ত। হালদা নদী গোলাপুকুর বালু মহাল প্রভৃতি।
এ ব্যাপারে ফটিকছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা দীপক কুমার রায় জানান দক্ষিন এশিয়ার একমাত্র প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন হালদা নদী পরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য যে সিদ্ধার্ন্ত নেওয়া হয়েছে তাহা কার্যকর করা হবে।

Leave a Reply