,

Home » Top » দলীয় প্রার্থী না জোটের প্রার্থী ! প্রার্থী নিয়ে চিন্তিত ফটিকছড়ি আওয়ামীলীগ

দলীয় প্রার্থী না জোটের প্রার্থী ! প্রার্থী নিয়ে চিন্তিত ফটিকছড়ি আওয়ামীলীগ

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ফটিকছড়ি আওয়ামীলীগ ও ১৪ দলীয় জোটের সম্ভাব্য প্রার্থী (বাম দিক থেকে) আলহাজ্ব নুরুল
আলম চৌধুরী, ১৪ দলীয় জোটের সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী, এম.তৌহিদুল আলম বাবু, ফখরুল আনোয়ার (নিচে
বাম দিক থেকে) আফতাব উদ্দিন চৌধুরী, এটিএম পেয়ারুল ইসলাম,আখতার উদ্দিন মাহমুদ পারভেজ, এইচ এম আবু তৈয়ব।

এম জুনায়েদ, ফটিকছড়ি চট্টগ্রাম:

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রাম-২ ফটিকছড়ি মহাজোটের আসনের শরিক দল নিয়ে চিন্তিত হয়ে পড়েছেন উপজেলা আওয়ামী লীগ। কারণ জোট থেকে প্রার্থী নিশ্চিত করলে দলীয় মনোনয়ন অনিশ্চিত হয়ে পড়বে বলে তাদের আশঙ্কা। এসব নিয়ে দলের মধ্যে চলছে ক্ষোভ, অসুন্তুষ্টি দ্বিধা-দ্বন্ধ। এসব বিষয় নিয়ে সম্প্রতি একাধিকবার আওয়ামী লীগে ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশও ঘটেছে। এই আসনে জোটের প্রার্থী ছাড়াও দলের একাধিক মনোনয়ন প্রত্যাশী আছেন।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাধিক নেতা-কর্মী ক্ষোভের সঙ্গে এই প্রতিনিধিকে জানান, এ আসনের বর্তমান এমপির সঙ্গে উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের সুসম্পর্ক নেই। যার কারণে দলীয় নেতা-কর্মীদের বিভিন্নভাবে হয়রানির শিকার হতে হচ্ছে। তৃণমূলের নেতা-কর্মীরাও এজন্য হতাশার মধ্যে রাজনীতি করছেন। তবে এবার জোট নয়, দলের প্রার্থী চান তৃণমূলের নেতা-কর্মীরা। এতে সাংগঠনিক তৎপরতাসহ দলীয় কর্মকান্ড বেড়ে যাবে বলে জানান তারা।

জাতীয় সংসদের ২৭৯ তম চট্টগ্রাম-২ আসন হচ্ছে ফটিকছড়ি। দেশের সর্ববৃহৎ এ উপজেলায় ২টি থানা,২টি পৌরসভা ও ১৮ টি ইউনিয়ন নিয়ে ৩ লাখ ৭৫ হাজার ৭ শত ৪৫ জন ভোটার নিয়ে এ সংসদীয় আসন গঠিত। জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে ফটিকছড়িতে নৌকার সম্ভাব্য অনেক প্রার্থী মনোনয়নের আশায় মাঠে নেমেছে। তবে উপজেলা আওয়ামীলীগ ও আওয়ামীলীগ পরিবার নামে দু’ভাগে বিভক্ত থাকায় কে দলীয় মনোনয়ন পাবে তা এখনো পরিস্কার হয়নি। শেষ পর্যন্ত জোটের প্রার্থী মনোনয়ন পাবে নাকি দলীয় প্রার্থী মনোনয়ন পাবে এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম চলছে নানা মন্তব্য। তবে সকল জল্পনা- কল্পনার অবসান ঘটিয়ে আওয়ামীলীগের সভানেত্রী ও প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা নতুন কোন প্রার্থী দিয়ে চমক সৃষ্টি করবে কিনা তা এখন সময়ে দেখা যাবে বলেও মন্তব্য করেন অনেকে ।

অতীতে চট্টগ্রাম -২ ফটিকছড়ি আসন থেকে ২ বার আওয়ামীলীগের প্রার্থী নুরুল আলম চৌধুরী, একবার বিএনপি থেকে জামাল উদ্দিন আহমেদ,জাসদ থেকে একবার মজাহারুল হক শাহ চৌধুরী, আওয়ামীলীগ, বিএনপি ও তরিকত ফেডারেশন থেকে (তরিকত ফেডারেশন থেকে নির্বাচন করলে ও তাঁর নির্বাচনী প্রতীক ছিল নৌকা) ৩ বার সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী, আওয়ামীলীগ থেকে ২ বার রফিকুল আনোয়ার, বিএনপি থেকে ১ বার সালাহ উদ্দিন কাদের চৌধুরী জয়লাভ করেন।

এদিকে তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান সাংসদ আলহাজ্ব সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী ১৪ দলের শরীক হিসেবে মনোনয়ন পাবেন বলে বিভিন্ন সভা সমাবেশে প্রচার করে আসছেন। আবার প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনা যাকে নৌকা প্রতীক দিবে তার পক্ষে কাজ করবেন বলেও উল্লেখ করে আসছেন তিনি। তবে উপজেলা আওয়ামীলীগের বিভক্তির কারনে কে মনোনয়ন পাবে তা এখনো নিশ্চিত না হওয়ায় উপজেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মীদের মাঝে হতাশা বিরাজ করছে।

তবে বিভক্তি নিরসন করে সঠিক সিদ্ধান্ত না নিলে দলীয় প্রার্থী জয়ী হবার সম্ভাবনা কঠিন হবে বলে জানান দলের অনেক সিনিয়ির নেতারা। তবু সম্ভাব্য প্রার্থীরা গনসংযোগ সহ সভা সমাবেশে বর্তমান সরকারের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে যাচ্ছেন। এবারে ফটিকছড়ি উপজেলায় আওয়ামীলীগের সম্ভাব্য প্রার্থীরা হলেন- উত্তর জেলা আওযামীলীগের সভাপতি সাবেক সাংসদ ও রাষ্ট্রদূত আলহাজ্ব নুরুল আলম চৌধুরী, ১৪ দলীয় জোটের তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী, বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান এম.তৌহিদুল আলম বাবু, উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক ফখরুল আনোয়ার,সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এটিএম পেয়ারুল ইসলাম,সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আফতাব উদ্দিন চৌধুরী, জেলা পরিষদ সদস্য আখতার উদ্দিন মাহমুদ পারভেজ,উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক এইচ এম আবু তৈয়ব সহ আরো একাধিক প্রার্থীর নাম শুনা যাচ্ছে।

Leave a Reply